আশুলিয়ায় গণধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ; কিশোর গ্যাংয়ের প্রধান সারুফ আটক

প্রকাশিত: 2:05 PM, October 7, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাভারের আশুলিয়ায় দুই বান্ধবীকে গণধর্ষণের অভিযোগে প্রিন্স কিশোর গ্যাংয়ের প্রধান সারুফকে আটক করেছে পুলিশ। এ নিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের ৪ সদস্যকে আটক করলো পুলিশ।

বুধবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে খুলনা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে ভাদাইল ও নয়ারহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে পান রাকিব, ডায়মন্ড আল আমিন ও জাকিরকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় আরও ৮ জন পলাতক রয়েছে।

আটক সারুফ নড়াইল জেলার আকরামের ছেলে। সে বাবা-মার সঙ্গে আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় থেকে খাজা গরিবে নেওয়াজ স্কুলে লেখাপড়া করতো।

গ্যাংয়ের অন্য সদস্যরা হলো- আলমিন, জিদান, রেদওয়ানসহ আরও কয়েকজন। তাদের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ভুক্তভোগীর চাচার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থেকে একটি কারখানায় কাজ করতো ভুক্তভোগীরা। কারখানা ছুটির সুবাদে তাদের প্রতিবেশী চাচার সঙ্গে ওই এলাকার গুলিয়ারটেক এলাকায় বেড়াতে গেলে প্রিন্স কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা তাদের ঘিরে ফেলে। পরে ভুক্তভোগীর চাচাকে মারধর করে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করে। ভিডিও ফাঁস হলে ভুক্তভোগীরা গ্রামে চলে যেতে বাধ্য হয়।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক আসওয়াত জানায়, এ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে ভোরে আটক করা হয়। পরে সারুফের অবস্থান শনাক্ত করে তার বাবা আকরামকে নিয়ে খুলনায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। বাকিদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।