কৌতুক

প্রকাশিত: 1:42 PM, July 20, 2020
একদিন দুটি ছাগল বনে ঘাস খেতে যায়। ঘাস খেতে খেতে সন্ধ্যা হয়ে গেলে তারা দুজনে ভাবে আজ রাতটা এখানে কাটাবে। তারা থাকার জায়গা খুজতে থাকে। একটি গুহা পেলে, গুহায় ছাগল দুটি ঢুকে পড়ে। কিছুক্ষন পর তারা দেখতে পায় এটি বাঘের গুহা এবং সামনে দেখতে পায় বাঘ আসছে। তখন এক ছাগল আরেক ছাগলকে বলল, আমি যেভাবে তোকে শিখাচ্ছি সে ভাবে তুই উত্তর দিবি।
প্রথম ছাগলঃ কিরে আমাকে নাকি বাঘের মাংস খাওয়াবি। কৈ বাঘ আসে? দ্বিতীয় ছাগলঃ ধৈয্য ধর এখনই বাঘ আসবে। আসলেই ঘাড় মটকে খেয়ে ফেলব। বাঘ ছাগলের কথা শুনে চমকে যায়, ভাবে তার চেয়েও বড় কেউ হয়ত তার গুহায় আছে। এই ভেবে সে পিছন ফিরে ভয়ে পালিয়ে যেতে থাকে। রাস্তায় দেখা হয় বানরের সাথে। বানরঃ কি বাঘ মামা পালাচ্ছো ক্যান?
বাঘঃ আরে ভাগনে, আমার গুহায় কে যেন ঢুকেছে, আমার নাকি ঘাড় মটকে খেয়ে ফেলবে। মনে হয় আমার চেয়ে বড় কেউ হবে। বানরঃ দুর মামা। ওরা তো ছাগল। আমি ওদের ঘাস খেতে খেতে তোমার গুহায় ঢুকতে দেখেছি।বাঘঃ নারে ভাগনে কথা ঠিক না। আমি নিজ কানে শুনেছি। ওরা আমার নাকি ঘাড় মটকে খাবে। বানরঃ চল আমি তোমাকে দেখাচ্ছি। এই বলে বাঘ আর বানর গুহার দিকে রওনা হল। ছাগল দুটি দেখল বাঘ আর বানর তাদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রথম ছাগলঃ কিরে বাঘ তো এখনও এলনা। দ্বিতীয় ছাগলঃ দুর বোকা। একটু দাঁড়াও। বানরকে বলেছি বাঘকে ভুলিয়ে আমাদের গুহায় নিয়ে আসতে। এখনিই চলে আসবে, বানর তো অনেক চালাক। দেখিস বাঘ বুঝতেই পারবেনা, যে বানর থাকে ভুলিয়ে এখানে নিয়ে আসতেছে। এই কথা বাঘ শুনে, বানরের পিছনে দিল ছুট। বানর জীবন বাচাতে দৌড়াতে লাগল। ছাগল দুটি মিট মিট করে হাসতে লাগল।
কথা্ সাহিত্যিক র‌্যাক লিটন